কম দামে দেশি মোটর সাইকেল ‘দুরন্ত’

দেশি অটোমোবাইল প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান রানার কমদামে ‘দুরন্ত’ নামের একটি মোটর সাইকেল প্রস্তুত এবং বিক্রি করছে। রানারের ‘দুরন্ত’ মোটর সাইকেলটি ৮২.২ সিসির। এটির ইঞ্জিন সিঙ্গেল সিলিন্ডার ৪ স্টোক এয়ার কুলড পেট্রোল ইঞ্জিন। ইঞ্জিন ৪.০ কিলোওয়াট শক্তি উৎপাদন করতে পারে। ইঞ্জিনের ঘুর্ণন গতি ৭৫০০ আরপিএম। মোটর সাইকেলটিতে কিক দিয়ে স্টাট দিতে হয়। ফুয়েল ট্যাংকে ৭.৫ লিটার জ্বালানির ধারণ ক্ষমতা রয়েছে। দুরন্তের ওজন ৭৪.৫ কেজি। এটির স্পোকের চাকা। সামনের ও পেছনের চাকায় ড্রাম ব্রেক রয়েছে। রানার অটোমোবাইলের বিক্রয় কর্মকর্তা মো. হোসাইন চোধুরী জানান, দুরন্ত মোটর সাইকেলটি নগদে ৫৬ হাজার টাকায় বিক্রি করা হচ্ছে। মোটর সাইকেলটির দাম কম হওয়ার কারণে দুরন্তের চাহিদা তৈরি হয়েছে।…

Review Overview

User Rating: 3.83 ( 5 votes)

দেশি অটোমোবাইল প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান রানার কমদামে ‘দুরন্ত’ নামের একটি মোটর সাইকেল প্রস্তুত এবং বিক্রি করছে।
রানারের ‘দুরন্ত’ মোটর সাইকেলটি ৮২.২ সিসির। এটির ইঞ্জিন সিঙ্গেল সিলিন্ডার ৪ স্টোক এয়ার কুলড পেট্রোল ইঞ্জিন। ইঞ্জিন ৪.০ কিলোওয়াট শক্তি উৎপাদন করতে পারে। ইঞ্জিনের ঘুর্ণন গতি ৭৫০০ আরপিএম। মোটর সাইকেলটিতে কিক দিয়ে স্টাট দিতে হয়। ফুয়েল ট্যাংকে ৭.৫ লিটার জ্বালানির ধারণ ক্ষমতা রয়েছে। দুরন্তের ওজন ৭৪.৫ কেজি। এটির স্পোকের চাকা। সামনের ও পেছনের চাকায় ড্রাম ব্রেক রয়েছে।

কম দামে দেশি মোটর সাইকেল 'দুরন্ত'
রানার অটোমোবাইলের বিক্রয় কর্মকর্তা মো. হোসাইন চোধুরী জানান, দুরন্ত মোটর সাইকেলটি নগদে ৫৬ হাজার টাকায় বিক্রি করা হচ্ছে। মোটর সাইকেলটির দাম কম হওয়ার কারণে দুরন্তের চাহিদা তৈরি হয়েছে। ইতোমধ্যে কয়েকশ’ মোটর সাইকেল বিক্রি হয়েছে।
মো. হোসাইন চোধুরী আরও জানান, নগদের পাশাপাশি কিস্তিতেও দুরন্ত মোটর সাইকেলটি কেনার ‍সুযোগ রয়েছে। এক্ষেত্রে অর্ধেক দাম পরিশোধ করে বাকি টাকা কিস্তিতে দেয়া যাবে। তিন মাসের মধ্যে কিস্তির টাকা পরিশোধ করলে সুদ দিতে হবে না। কিন্তু এর বেশি সময়ে কিস্তি পরিশোধ করলে শতকরা ২.৫ হারে সুদ দিতে হবে। সর্বোচ্চ এক বছরের মধ্যে কিস্তির টাকা পরিশোধ করতে হবে।
দুরন্ত মোটর সাইকেলটির ছয় বছরের ইঞ্জিনের ওয়ারেন্টি রয়েছে। প্রথম বছরে ৪টা, দ্বিতীয় বছরে ৩টা এবং চতুর্থ বছরে ২টা ফ্রি সার্ভিস রয়েছে।
কিস্তিতে কেনার জন্য ২ কপি পাসপোর্ট সাইজের ফটো, জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপি, কর্মজীবীদের আইডিকার্ডের ফটোকপি অথবা ব্যবসায়ীদের জন্য ট্রেড লাইসেন্সের ফটোকপি, ব্যাংক অ্যাকাউন্টের হিসাব এবং দুইজন গ্যারান্টারের প্রত্যয়ন লাগবে। এসব কাগজপত্র এবং মোটর সাইকেলের দামের ৫০ ভাগ পরিশোধ করলে অনায়াসেই মোটর সাইকেলটি পাওয়া যাবে।
রানার অটোমোবাইলের যেকোনো শোরুমে দুরন্ত মোটর সাইকেলটি পাওয়া যাচ্ছে।

About শুভ্র সেন

সবাইকে শুভেচ্ছা । আমি শুভ্র,একজন বাইকপ্রেমী । ছোটবেলা থেকেই মোটরসাইকেলের প্রতি আমার তীব্র আগ্রহ রয়েছে । যখন আমি আমার বাড়ির আশেপাশে কোন মোটরসাইকেলের ইঞ্জিনের শব্দ শুনতে পেতাম, আমি তৎক্ষণাৎ মোটরসাইকেলটি দেখার জন্য ছুটে যেতাম ।২ বছর ধরে গবেষণা ও পরিকল্পনার পর আমি এই ব্লগটি তৈরী করি । আমার লক্ষ্য হল বাইক ও বাইক চালানো সম্পর্কে বাংলাদেশের মানুষের কাছে সঠিক তথ্য পৌঁছে দেয়া । সবসময় নিরাপদে বাইক চালান । আপনার বাইক চালানো শুভ হোক

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Sign up to our newsletter!


error: সকল লেখা সুরক্ষিত !!