রানার মোটরবাইকের নতুন অফার

জিনান টি৬ টিম-বাইকবিডি টেষ্টরাইড রিভিউ

জিনান চায়নার অন্যতম নেতৃস্থানীয় স্কুটার উৎপাদক প্রতিষ্ঠান। আর বাংলাদেশের বাজারে জিনান এখন পর্যন্ত কেবল স্কুটারই বাজারজাত করে থাকে। আর জিনান দিনে দিনে বাংলাদেশের বাজারে স্কুটারপ্রেমীদের মাঝে জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। আমরা জিনানের অন্যতম শক্তিশালী স্কুটার জিনান ভিস্তা এর অফিসিয়াল টেষ্টরাইড করেছিলাম। আর ভিস্তা ছিল জিনানের একটি বৃহৎ আকারের স্কুটার যেটা আকারে প্রায় একটি সিএনজি স্কুটারের মতোই। এটি একটি অত্যন্ত বিলাসবহুল স্কুটার, তবে অনেকেরই মনে হতে পারে এর অনেক ফিচারের মধ্যে কিছু হয়তো কেবলই বাহুল্য। সেই দৃষ্টিকোন থেকে আজকে আমাদের জিনান টি৬ টিম-বাইকবিডি টেষ্টরাইড রিভিউ এর জিনান টি৬ যথেষ্ট বাস্তবসম্মত বৈশিষ্ট্যপূর্ণ। জিনান টি৬ ১৫০সিসি ক্ষমতার একটি এয়ার-কুলড ইঞ্জিনচালিত স্কুটার, যা কিনা ১২.৩…

Review Overview

User Rating: 4.23 ( 3 votes)

জিনান চায়নার অন্যতম নেতৃস্থানীয় স্কুটার উৎপাদক প্রতিষ্ঠান। আর বাংলাদেশের বাজারে জিনান এখন পর্যন্ত কেবল স্কুটারই বাজারজাত করে থাকে। আর জিনান দিনে দিনে বাংলাদেশের বাজারে স্কুটারপ্রেমীদের মাঝে জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। আমরা জিনানের অন্যতম শক্তিশালী স্কুটার জিনান ভিস্তা এর অফিসিয়াল টেষ্টরাইড করেছিলাম। আর ভিস্তা ছিল জিনানের একটি বৃহৎ আকারের স্কুটার যেটা আকারে প্রায় একটি সিএনজি স্কুটারের মতোই। এটি একটি অত্যন্ত বিলাসবহুল স্কুটার, তবে অনেকেরই মনে হতে পারে এর অনেক ফিচারের মধ্যে কিছু হয়তো কেবলই বাহুল্য। সেই দৃষ্টিকোন থেকে আজকে আমাদের জিনান টি৬ টিম-বাইকবিডি টেষ্টরাইড রিভিউ এর জিনান টি৬ যথেষ্ট বাস্তবসম্মত বৈশিষ্ট্যপূর্ণ।

জিনান টি৬ টিম-বাইকবিডি টেষ্টরাইড রিভিউ

জিনান টি৬ ১৫০সিসি ক্ষমতার একটি এয়ার-কুলড ইঞ্জিনচালিত স্কুটার, যা কিনা ১২.৩ বিএইচপি শক্তি এবং ১০.৫ এনএম টর্ক উৎপাদন করতে পারে। প্রাথমিকভাবে মনে হতে পারে ১৫০সিসি ক্ষমতার ইঞ্জিনের তুলনায় এর হর্স-পাওয়ার আর টর্ক রেটিং কিছুটা কম; কিন্তু বাস্তব অবস্থা কিছুটা ভিন্ন। আর যদিও জিনান টি৬ বেশ ক্ষমতাসম্পন্ন তবুও আপনাদের মনে রাখতে হবে যে এটি একটি স্কুটার, আর বাংলাদেশের মানুষ স্কুটার গতির জন্য কেনেনা বরং স্থায়ীত্ব আর আরামদায়ক চালনার জন্যই কেনে।

জিনান টি৬ টেষ্টরাইড রিভিউ

আমাদের মনে হয় জিনান টি৬ এর পাওয়ার আর টর্ক রেটিং একটি স্কুটার হিসেবে অত্যন্ত মানানসই আর এর এক্সিলারেশন আসলেই অসাধারন। এটি দাড়ানো অবস্থা থেকে ১০০মিটার পথের মধ্যেই ৮০কিমি/ঘন্টা গতি তুলতে পারে। আমাদের কাছে এর ইঞ্জিনটি যথেষ্ট পরিশীলিত মনে হয়নি, তবে এর ইঞ্জিন ক্ষমতা আর মাইলেজের ব্লেন্ড আসলেই আকর্ষন করার মতোই।

জিনান টি৬ স্কুটারটির স্টাইল বেশ চমৎকার, আর এর সামনের ডাবল হেডলাইট আর পার্কিং লাইট সহ ইন্ডিকেটর পুরোটা মিলে বেশ চমৎকার একটি লুক দেয়। আর অন্ধকারে এর কারনেই অত্যন্ত আকর্ষনীয় একটি আবহ তৈরী হয়। আর হেডলাইট দুটো অন্ধকারেও খুব ভালো আলো দেয়। স্কুটারটির হেডলাইট, পার্কিং লাইট ইন্ডিকেটর, আর এলইডি সবগুলোই কারের মতো বডি-প্যানেলের সাথে ঢালুভাবে মিলিয়ে দেয়া। আর পেছনের প্যানেলটাও সামনের প্যানেলের মতো সুন্দর আর চমৎকারভাবে মিলিয়ে দেয়া।

সেরা স্কুটার

স্কুটারটির হ্যান্ডেলবার একটি রড-হ্যান্ডেলবার, যেটা হতাশাজনকভাবে এর সুন্দর চেহাড়ার সাথে মানায় না; আর এর মান ও আমাদের কাছে তেমন ভালো মনে হয়নি। আর এর হ্যান্ডেলবারে বসানো কন্ট্রোল সুইচগুলো বেশ ভালো, তবে ইন্ডিকেটর সুইচগুলো বেশ শক্ত আর তা নিয়ন্ত্রনে আমাদের যথেষ্ট ভুগতে হয়েছে। স্কুটারটির রাইডং পজিশন আরামদায়ক, কোনভাবেই আগ্রাসী ধরনের নয়; বরং ব্যস্ত ঢাকার রাজপথে অথবা মহাসড়কে কোথাও স্কুটারটি চালিয়ে আমাদের টেষ্ট-রাইডার ওয়াসিফ আনোয়ার শরীরে বা মেরুদন্ডে কোনরকম অস্বস্তি বা ব্যথা অনুভব করেননি।

জিনান টি৬ হেডলাইট

জিনান টি৬ স্কুটারটিতে কোন পাস-লাইট সুইচ নেই। আর এর ডিসপ্লে কনসোলে রয়েছে এ্যানালগ স্পিডোমিটার আর ডিজিটাল ফুয়েল ও ব্যাটারী গজ।

স্কুটার বৈশিষ্ট্য

জিনান টি৬ স্কুটারটির সিট বেশ আরামদায়ক। শহরের ব্যস্ত পথ অথবা লম্বা দুরের পথ যেটাই হোকনা কেন চালক ও যাত্রী দুজনই এতে আরামে ভ্রমন করতে পারবে। আর সিট খুব বেশী বিস্তৃত না হবার কারনে কিছুটা খাটো চালক এমনকি ভীড়ের মধ্যেও ভালোভাবে স্কুটারটি চালাতে পারবে। জিনান টি৬ স্কুটারটির স্যাডল-হাইট জিনান ভিস্তা হতে খানিকটা কম ফলে স্কুটারটি নিয়ন্ত্রন করা আরো সহজ। আর এর সিটের নীচের স্টোরেজ কম্পার্টমেন্টও বড় যাতে বড় আকারের ব্যাগ অথবা হেলমেট রাখা যেতে পারে। তবে জায়গার পরিসর আরো একটু বাড়ানো যেতো। স্কুটারটির পেছনের গ্র্যাব-রেইলটি এর বডি-প্যানেলের সাথে সমান্তরাল ও মানানসই, যাত্রী খুব সহজেই তা ধরে রেখে তার ভারসাম্য রক্ষা করতে পারবে।

>>জিনান টি৬ ভিডিও রিভিউ দেখুন এখানে<<

স্কুটারটির একজষ্ট পাইপটি বেশ ভালোই; জিনান এটাকে বডি ডিজাইনের সাথে মিলিয়ে বেশ সিম্পল ডিজাইনের রেখেছে। আর এর ডিজাইনের কারনে আমাদের মনে হয় এর গ্যাসের বহির্গমন সহজ হয়েছে। তবে স্কুটারটিতে ভিস্তা এর মতো উইন্ড-শীল্ড থাকলে ভালো হতো। তাতে হয়তো আরো খানিকটা এ্যরোডায়নামিক বৈশিষ্ট্য পেত, আর চালকের বুকে বাতাসের চাপ লাগা থেকে রক্ষা পেত।

স্কুটার সাস্পেনশন সিস্টেম

স্কুটারটির একটি দুর্বলতা হলো এর পেছনের সাসপেনশন। তবে সামনের সাসপেনশন বেশ ভালো। স্কুটারটির সামনের চাকায় ডিস্ক ব্রেক আর পেছনের চাকায় ড্রাম ব্রেক রয়েছে যার কার্যকারীতা মোটামুটি ভালো। প্রায় ৮০কিমি/ঘন্টা গতি অনায়াসে এটি নিয়ন্ত্রনে নিয়ে আসতে পারে।

জিনান টি৬ স্কুটারটির গ্রাউন্ড ক্লিয়ারেন্স খুবই ভালো। আমরা ঢাকা শহরের বেশ কিছু অতিকায় স্পিড-ব্রেকারে পিলিয়ন সহ সবেগে চালিয়ে দেখেছি যে স্কুটারটি ভালোভাবেই তা পার করে এসেছে। তবে স্কুটারটিতে চালকের পা রাখার স্থানটির পরিসর বেশ কম, তাতে খুব বেশী আয়েসী ভাবে পা রাখার সুযোগ নেই। আর চালকের সীটের নীচেই ফুয়েল ট্যাংক আর তারপরেই স্টোরেজ কম্পার্টমেন্ট হবার কারনে ফুয়েল ট্যাংকটাও একটু ছোট। স্কুটারটির চাকা আর টায়ার নিয়ে আমাদের কোন অভিযোগ নেই। যদিও টায়ারগুলো মোটামুটি পাতলা মনে হয়েছে, তবু এর গ্রীপ বেশ ভালো ছিল আর তা পঙ্চার রেজিস্ট্যান্ট হবার কারনে কোন ঝামেলাতেও পড়তে হয়নি।

জিনান টি৬ স্কুটার

জিনান টি৬ স্কুটারটিতে বেশ কিছু ভালো নিরাপত্তা বৈশিষ্ট্য রয়েছে। এতে আছে সংযুক্ত সিকিউরিটি এলার্ম আর সাইড স্ট্যান্ড ইন্ডিকেটর। সাইড স্ট্যান্ডটি নামানো থাকলে সামনের প্যানেলে তা নির্দেশক বাতি জলবে আর কোনভাবেই ইঞ্জিন অন হবে না, আর ইঞ্জিন অন থাকলেও তা অফ হয়ে যাবে। আর সামনের প্যানেলে হেডলাইট অন অফ নির্দেশক বাতি আছে, যা লাইট অন অফের অবস্থা নির্দেশ করে। তাই চালক সহজেই বুঝতে পারবেন যে দিনের বেলা হেডলাইট অন আছে কি নেই।

জিনান টি৬

জিনান টি৬ স্কুটারটির পারফর্মেন্সের কথা যদি বলতে হয় তবে বলতে হয় অসাধারন। আমাদের টেষ্ট-রাইডার ওয়াসিফ আনোয়ার স্কুটারটিতে প্রায় ১১৫কিমি/ঘন্টা গতি তুলেছিলেন ঢাকার এয়ারপোর্ট রোডে। আপনাদের মনে হতে পারে এ আর এমনকি; তাদের জন্যে বলতে হয় আপনাদের মনে রাখতে হবে যে এটি একটি স্কুটার, আর এটা আকারে অনেকটাই বড়সড় যে এই গতি সত্যিই অনেকটাই বেশী। আর স্কুটারটিতে তিনি প্রায় ৩২-৩৫কিমি/লিটার মাইলেজ পেয়েছিলেন। আর কোম্পানীর মতে এর ১৫০০কিমি এর ব্রেক-ইন পিরিয়ড পার হলে এই মাইলেজ আরো বাড়বে।

Click Here>> Znen T6 Price In Bangladesh

জিনান টি৬ স্কুটার রিভিউ

বাইকবিডি মূল্যায়ন:

  • ১লক্ষ ৫৫ হাজার মূল্যমানের বিপরীতে স্কুটারটি বাজারের অন্যান্য স্কুটারের তুলনায় যথেষ্ট বৈশিষ্ট্যপূর্ণ।
  • স্কুটারটির মাইলেজ আরো বেশী হওয়া প্রয়োজন ছিল যদিও এটি বেশ পাওয়ারফুল স্কুটার যা প্রায় ১০০ মিটারের মধ্যে ৮০কিমি/ঘন্টা গতি তুলতে পারে।
  • এর মতো বড় আকারের স্কুটারের তুলনায় এর স্টোরেজ কম্পার্টমেন্টের আকার বেশখানিকটা ছোটই; তাতে আপনি কোন হেলমেট, জ্যাকেট বা ব্যাগ রাখার পর খুব সামান্য কিছুই রাখতে পারবেন।
  • সংযুক্ত সিকিউরিটি বৈশিষ্ট্যগুলো বেশ ভালো কিছু সংযুক্তি।
  • স্কুটারটির তেল ধারনক্ষমতা স্কুটারটির আকার আর ক্ষমতা বিচারে বেশখানিকটা কম।
  • স্কুটারটির কর্মদক্ষতা এককথায় চমৎকার আর যেভাবে তা গতি তোলে ও ধরে রাখে তা আসলেই অসাধারন।
  • ডাবল হেডলাইটের আলো বেশ ভালো। অন্ধকারে তো বটেই দিনেও দেখতে অনেক সুন্দর দেখায়।
  • স্কুটারটির ব্রেক ও নিয়ন্ত্রনযোগ্যতা খুবই ভালো।
  • সামনের কনসোলে কোন রেডিও বা ঘড়ি নেই।
  • চালকের পা রাখার পরিসর বেশ ছোট।
  • স্কুটারটির সামনের প্যানেলে কিছু রাখার মতো বক্স থাকলে ভালো হতো।
  • স্কুটারটির বসার সিট চালক ও যাত্রী উভয়ের জন্যই আরামদায়ক।
  • স্কুটারটির বাহ্যিক ডিজাইন বেশ ভালো।

পরিশেষে বলা যায় যে জিনান টি৬ স্কুটারটি একটি চমৎকার নির্মানশৈলীর একটি স্পোর্টস মডেলের স্কুটার। এটা আকারে বেশ বড়সড় আর রাস্তায় সহজেই মানুষের নজরকাড়ে। আর এর পারফর্মেন্স এয়ারকুলড অন্যান্য বাইকের মতোই যথেষ্ট ভালো যে আপনি এটি চালাতে বেশ উপভোগ করবেন।

অনুবাদকৃত:   Znen T6 Team BikeBD Test Ride Review

টেষ্টরাইডার:  ওয়াসিফ আনোয়ার

Znen Scooter Showroom:

106, Aolad Hossain Market Main road, Tejgaon,

Dhaka- 1215

Cell: o1916 030070, 01756 063010

About Saleh Md. Hassan

আমি কোন বাতিকগ্রস্ত পথের খেয়ালী ধরনের নই…. তবে মোটরসাইকেল পছন্দ করি ও প্রয়োজনে ব্যবহার করি মাত্র…. কিছুটা ঘরকুনো বাধ্যগত চালক…. তবে মাঝে মাঝে নিজের ভেতরের যোগী-ভবঘুরে স্বত্তাকে মুক্তি দেই আমার দুইচাকার ঘোড়ার উপর চেপে বসে বিস্তৃত অদেখার পথে ছুটে যাবার জন্য…..অনেকটা বাঁধনহীন চির ভবঘুরের মতো…..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*