বৈধতা পেল মুভ সহ অন্যান্য রাইড শেয়ারিং এপ

উবার, পাঠাও, মুভের মতো স্মার্টফোননির্ভর পরিবহনসেবার আইনি বৈধতা দিল সরকার। এ জন্য ‘রাইডিং শেয়ারিং সার্ভিস নীতিমালার’ খসড়া অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। আজ সোমবার ঢাকার তেজগাঁওয়ে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভার বৈঠকে এই নীতিমালার খসড়া অনুমোদন দেওয়া হয়। পরে সচিবালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে সভার সিদ্ধান্ত জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম। এতে করে মুভ, উবার, পাঠাওয়ের মত রাইড শেয়ারিং এপ গুলো বৈধতা পাবে। রাইড শেয়ারিং এপের ক্ষেত্রে অন্যতম হচ্ছে মুভ। যারা বর্তমানে রাইড শেয়ারিং এর ক্ষেত্রে অনেক এগিয়ে আছে। এছাড়া তারা শীঘ্রই সিএনজি চালিত অটো রিকশা তাদের এপে যোগ করতে যাচ্ছে। যা বাংলাদেশে প্রথম বারের মত কোন রাইড শেয়ারিং এপ নিয়ে আসছে। এছাড়া…

Review Overview

User Rating: Be the first one !

উবার, পাঠাও, মুভের মতো স্মার্টফোননির্ভর পরিবহনসেবার আইনি বৈধতা দিল সরকার। এ জন্য ‘রাইডিং শেয়ারিং সার্ভিস নীতিমালার’ খসড়া অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। আজ সোমবার ঢাকার তেজগাঁওয়ে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভার বৈঠকে এই নীতিমালার খসড়া অনুমোদন দেওয়া হয়। পরে সচিবালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে সভার সিদ্ধান্ত জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম। এতে করে মুভ, উবার, পাঠাওয়ের মত রাইড শেয়ারিং এপ গুলো বৈধতা পাবে।

মুভ

রাইড শেয়ারিং এপের ক্ষেত্রে অন্যতম হচ্ছে মুভ। যারা বর্তমানে রাইড শেয়ারিং এর ক্ষেত্রে অনেক এগিয়ে আছে। এছাড়া তারা শীঘ্রই সিএনজি চালিত অটো রিকশা তাদের এপে যোগ করতে যাচ্ছে। যা বাংলাদেশে প্রথম বারের মত কোন রাইড শেয়ারিং এপ নিয়ে আসছে। এছাড়া মুভ কম খরচে রাইড শেয়ার, অন লাইন ডেলিভারি ও কুরিয়ার সার্ভিসের সেবা প্রদান করে থাকে।

>> আজ এই রেজিস্ট্রেশন করে হয়ে যান মুভ রাইডার এবং জিতে নিন আকর্ষনীয় গিফট <<

কিভাবে মুভ এপে সাইন আপ করবেন? আপনি যদি মুভ এর রাইডার হতে চান তবে আপনাকে কিছু স্টেপ ফলো করতে হবে। মুভ পার্টনার এপটি ডাউনলোড করতে হবে গুগল বা আই স্টোরে পাবেন। সেখান থেকে ডাউনলোড করে ইনেস্টল করে নিন। এরপর আপনার নাম্বার দিন। আপনি ভেরিফাই এর জন্য একটি কোড পাবেন। সেই কোডটি দিয়ে  ভেরিফাই করুন । ভেরিফাইড হয়ে যাবার পর এপটিতে আপনার নাম, ঠিকানা, বাইকের মডেল, বাইকের রেজিঃ নাম্বার, ড্রাইভিং লাইসেন্স নাম্বার ও ছবি দিতে হবে । এরপর রেফারেল কোড আছে সেটি দিতে হবে । রেফারেল কোড হচ্ছে BIKERS2018 । এই রেফারেল কোড দিয়ে পরবর্তিতে লটারীর মাধ্যমে একজন কে বেছে নেয়া হবে। তাকে গিফট ও পুরস্কৃত করা হবে।

muv bangladesh

ঢাকা-চট্টগ্রামসহ সারা দেশেই এই সেবা দেওয়া যাবে বলে জানিয়েছেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব। ১১টি শর্ত মেনে এই সেবা দেওয়া যাবে বলেও জানান তিনি। তবে এ জন্য সেবাদানকারী ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে প্রথমে একটা লাইসেন্স নিতে হবে। পরে সেটা নবায়ন করতে হবে।

বর্তমানে ট্যাক্সিক্যাবের ভাড়ার জন্য যে নীতিমালা আছে, এ ধরনের রাইডিংয়ের ক্ষেত্রেও সেই নীতিমালা অনুযায়ী ভাড়া নির্ধারণ হবে। পাঠাও সার্ভিসের মতো মোটরসাইকেলের মাধ্যমেও এই সেবা দেওয়া যাবে। সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠানগুলো এই নীতিমালার শর্ত ভঙ্গ করলে সনদ বাতিলসহ প্রচলিত আইনে শাস্তি পাবে।

নীতিমালা অনুযায়ী রাইডশেয়ারিং অ্যাপ্লিকেশনে ‘এসওএস’ সুবিধা থাকবে। কোনো জরুরি মুহূর্তে এসওএস বোতাম স্পর্শের সঙ্গে সঙ্গে রাইডশেয়ারিং অ্যাপ্লিকেশন স্বয়ংক্রিয়ভাবে ওই ফোন নম্বরে চালকের তথ্য ও যাত্রীর অবস্থান করার তথ্য পাঠাবে। মোটরযান চালককে রাইডশেয়ারিং সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠানের সফটওয়্যার অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহারের প্রশিক্ষণ থাকতে হবে।

muv

সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সচিব মো. নজরুল ইসলাম প্রথম আলোকে বলেন, ‘রাইডশেয়ারিং সেবা চালু হলে ঢাকার যানজট পরিস্থিতির উন্নতি হবে। পাশাপাশি যাত্রীসেবার মানও বাড়বে। বিশ্বের উন্নত দেশগুলোতে এ সেবা চালু হয়েছে এবং ঝামেলামুক্ত ও আরামদায়ক যাত্রীসেবা হিসেবে রাজধানীবাসী এ সেবা পছন্দ করেছে। বাংলাদেশে কিছু কিছু কোম্পানি আনুষ্ঠানিকভাবে এ সেবা চালু করতে চাইছে। তাই সুষ্ঠুভাবে এ সেবা পরিচালনা করতেই এ নীতিমালা করার উদ্যোগ নিয়েছি।’

 

নিউজসোর্সঃ প্রথম-আলো

--

About Arif Raihan opu

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*