সাধারণের জন্য ১৫৫ সিসির বেশি মোটরসাইকেল নয়

মোটরসাইকেলের সিসি ১৫৫ থেকে ১৬৫-তে বাড়ানোর জন্য মোটরসাইকেল অ্যাসেম্বালারস অ্যান্ড ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যাসোসিয়েশন (বিএমএএমএ) দাবি নাকচ করে দিয়েছে পুলিশ কর্তৃপক্ষ। এ বিষয়ে পুুলিশের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, মোটরসাইকেল আরোহীদের হেলমেট ব্যবহারে আগ্রহী না হওয়া, সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড ও সড়ক দুর্ঘটনা বৃদ্ধির কারণে প্রাণহানি বাড়ায় সিসি বাড়ানো হচ্ছে না। বাণিজ্য মন্ত্রণালয় সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে। সূত্র জানায়, বিএমএএমের সভাপতি মতিউর রহমান গত ১৫ মে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে মোটরসাইকেলের সিসি বাড়ানোর জন্য একটি চিঠি পাঠান। চিঠিতে তিনি প্রযুক্তি উন্নয়ন ও পরিবর্তনের কারণে আমদানি নীতিতে ১৫৫ সিসির পরিবর্তে ১৬৫ সিসি পর্যন্ত মোটরসাইকেলের যন্ত্রাংশ (সিকেডি এইচএস কোড ৮৭১১.২০.২১) আমদানির অনুমোদন দাবি করেন। চিঠিতে তিনি উল্লেখ করেন,…

Review Overview

User Rating: 4.15 ( 6 votes)

মোটরসাইকেলের সিসি ১৫৫ থেকে ১৬৫-তে বাড়ানোর জন্য মোটরসাইকেল অ্যাসেম্বালারস অ্যান্ড ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যাসোসিয়েশন (বিএমএএমএ) দাবি নাকচ করে দিয়েছে পুলিশ কর্তৃপক্ষ। এ বিষয়ে পুুলিশের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, মোটরসাইকেল আরোহীদের হেলমেট ব্যবহারে আগ্রহী না হওয়া, সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড ও সড়ক দুর্ঘটনা বৃদ্ধির কারণে প্রাণহানি বাড়ায় সিসি বাড়ানো হচ্ছে না। বাণিজ্য মন্ত্রণালয় সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

%e0%a6%b8%e0%a6%be%e0%a6%a7%e0%a6%be%e0%a6%b0%e0%a6%a3%e0%a7%87%e0%a6%b0-%e0%a6%9c%e0%a6%a8%e0%a7%8d%e0%a6%af-%e0%a7%a7%e0%a7%ab%e0%a7%ab-%e0%a6%b8%e0%a6%bf%e0%a6%b8%e0%a6%bf%e0%a6%b0-%e0%a6%ac

সূত্র জানায়, বিএমএএমের সভাপতি মতিউর রহমান গত ১৫ মে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে মোটরসাইকেলের সিসি বাড়ানোর জন্য একটি চিঠি পাঠান। চিঠিতে তিনি প্রযুক্তি উন্নয়ন ও পরিবর্তনের কারণে আমদানি নীতিতে ১৫৫ সিসির পরিবর্তে ১৬৫ সিসি পর্যন্ত মোটরসাইকেলের যন্ত্রাংশ (সিকেডি এইচএস কোড ৮৭১১.২০.২১) আমদানির অনুমোদন দাবি করেন। চিঠিতে তিনি উল্লেখ করেন, ভোক্তাদের আয় বাড়া সত্ত্বেও তারা আধুনিক, নিরাপদ ও অধিক সাশ্রয়ী নতুন মডেলের মোটরসাইকেল ব্যবহারের সুযোগ থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন। ফলে এ খাত থেকে সরকার কাঙ্খিত শুল্ক হারাচ্ছে। এ ছাড়া অধিক সিসি সম্পন্ন মোটরসাইকেল চোরাইপথে দেশে ঢুকছে।

এ পরিপ্রেক্ষিতে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের উপসচিব নিরোদ চন্দ্র মণ্ডল ১৬৫ সিসি পর্যন্ত মোটরসাইকেলের যন্ত্রাংশ আমদানির অনুমতির বিষয়ে মতামত প্রদানের জন্য স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে চিঠি পাঠান। পরে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ও এ বিষয়ে পুলিশ সদর দপ্তরের মতামত জানতে চেয়ে সেখানে চিঠি দেয়।

স্বরাষ্ট্র ও বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের এমন চিঠির পরিপ্রেক্ষিতে পুলিশের অতিরিক্ত ডিআইজি (ট্রান্সপোর্ট) একেএম হাফিজ আক্তার পাল্টা চিঠিতে ১৫৫ সিসির বেশি মোটরসাইকেল আমদানি নিরুৎসাহিত করা যেতে পারে বলে মতামত দেন। এ বিষয়ে ২৪ ডিসেম্বর ২০১২ সালের বাংলাদেশ গেজেটের বরাত দিয়ে তিনি বলেন, দেশে ৩ বছরের বেশি পুরনো ও ১৫৫ সিসির ঊর্ধ্বে সব ধরনের মোটরসাইকেল আমদানি নিষিদ্ধ। তবে পুলিশ বিভাগের ক্ষেত্রে ১৫৫ সিসির এই সীমা প্রযোজ্য নয়। তাছাড়া পুলিশ বিভাগ মনে করে, যেহেতু তারা ১৫৫ সিসি মোটরসাইকেল ব্যবহার করছে, সেহেতু সাধারণ মানুষের জন্য ১৫৫ সিসির ঊর্ধ্বে মোটরসাইকেল ব্যবহারের অনুমতি দেওয়া হলে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড বৃদ্ধিসহ আইন-শৃঙ্খলার অবনতি হওয়ার সম্ভাবনা আছে।

এ চিঠির বিষয়ে ডিআইজি হাফিজ আক্তার বলেন, ইতিমধ্যে ১৫৫ সিসির বেশি মোটরসাইকেল আমদানি নিরুৎসাহিত করতে পুলিশ বিভাগের মতামত জানানো হয়েছে। এ ছাড়া জনগণ এখনও হেলমেট ব্যবহারে সচেতন নয়। এমন অবস্থায় বেশি গতির মোটরসাইকেল চালানো দুর্ঘটনার কারণ ও ট্রাফিক শৃঙ্খলার বিঘ্ন ঘটতে পারে।

About শুভ্র সেন

সবাইকে শুভেচ্ছা । আমি শুভ্র,একজন বাইকপ্রেমী । ছোটবেলা থেকেই মোটরসাইকেলের প্রতি আমার তীব্র আগ্রহ রয়েছে । যখন আমি আমার বাড়ির আশেপাশে কোন মোটরসাইকেলের ইঞ্জিনের শব্দ শুনতে পেতাম, আমি তৎক্ষণাৎ মোটরসাইকেলটি দেখার জন্য ছুটে যেতাম ।২ বছর ধরে গবেষণা ও পরিকল্পনার পর আমি এই ব্লগটি তৈরী করি । আমার লক্ষ্য হল বাইক ও বাইক চালানো সম্পর্কে বাংলাদেশের মানুষের কাছে সঠিক তথ্য পৌঁছে দেয়া । সবসময় নিরাপদে বাইক চালান । আপনার বাইক চালানো শুভ হোক

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Sign up to our newsletter!


error: সকল লেখা সুরক্ষিত !!