স্প্রোকেট এর সাতকাহন

অনেকেই বাইক এর স্টক পারফরমেন্স কে Alter করেন এবং, কারো পছন্দ তরণ ( acceleration) , কারো বা টপ স্পীড , আবার আমার মতো সবার পছন্দ দুইটাই  যাইহউক, স্টক ইঞ্জিন হউক, বা মডিফাইড ইঞ্জিন , আপনি এই acceleration এবং টপ স্পীড এর তারতম্ম করতে চাইলে , আপনাকে অবশ্যই স্প্রোকেট এ কিছু পরিবর্তন করতে হবে। আমি দেখাবো কিভাবে তা বাইক এর স্পীড এবং acceleration এ পরিবর্তন আনে। তার আগে আমরা কিছু পরিচিত বাইক গুলার স্টক স্প্রোকেট দেখে নেই। বাজাজ পালসার ১৫০ UG 4 = ১৫/ ৪৪ = .৩৪০ ইয়ামাহা এফজেডএস = ১৪ / ৪০ = .৩৫০ অ্যাপাচি আর টি আর = ১৩/৪৪…

Review Overview

User Rating: 4.8 ( 1 votes)

অনেকেই বাইক এর স্টক পারফরমেন্স কে Alter করেন এবং, কারো পছন্দ তরণ ( acceleration) , কারো বা টপ স্পীড , আবার আমার মতো সবার পছন্দ দুইটাই  যাইহউক, স্টক ইঞ্জিন হউক, বা মডিফাইড ইঞ্জিন , আপনি এই acceleration এবং টপ স্পীড এর তারতম্ম করতে চাইলে , আপনাকে অবশ্যই স্প্রোকেট এ কিছু পরিবর্তন করতে হবে। আমি দেখাবো কিভাবে তা বাইক এর স্পীড এবং acceleration এ পরিবর্তন আনে। তার আগে আমরা কিছু পরিচিত বাইক গুলার স্টক স্প্রোকেট দেখে নেই

স্প্রোকেট এর সাতকাহন

বাজাজ পালসার ১৫০ UG 4 = ১৫/ ৪৪ = .৩৪০
ইয়ামাহা এফজেডএস = ১৪ / ৪০ = .৩৫০
অ্যাপাচি আর টি আর = ১৩/৪৪ = .৩২৫
ইত্যাদি ।

লক্ষ করুন, ফাইনাল ড্রাইভ রেশিও যত কম হবে, acceleration তত বাড়বে (আরটিআর ) , এবং রেশিও ( এফজেডএস) যত বেশী হবে acceleration তত কমবে, তবে টপ স্পিড বাড়বে। ( তবে মেইন transmission , তিনটি বাইক এর তিন রকম , সো এই খানে তুলনা করা অবান্তর , জাস্ট বুঝতে সুবিধার জন্য দেয়া )
আমি বুঝার সুবিধারতে শুধু পালসার ১৫০ ( UG 4) নিয়ে আলোচনা করবো , তবে প্রিনিস্পাল সব বাইক এর জন্য সমান।

স্টক আছে = ১৫ সামনের এবং ৪৪ পিছনের ।
১৫/৪৪= .৩৪০

এখন আমি ওভার গিয়ার করতে চাইলে, পালসার ১৮০ এর পিছনের ৩৯ দাতের স্প্রকেট লাগিয়ে নিলাম।

এখন সেটাপ = ১৫/৩৯ = .৩৮৪

যেহেতু ওভার গীয়ার করেছি, তাই টপ স্পীড বাড়বে, কিন্ত এক্সেলেরেশন কমবে। কত টপ স্পিড বাড়বে তা আমরা সহজেই বের করতি পারি।

ধরুন ৯০০০ RPM এ স্টক ( ৫ম গিয়ার) স্পীড ১১০ কিমি/ঘন্টা ( চিত্র ২)
৩৯ দাতের স্প্রকেট লাগানর পর আমরা রেশিও তে তারতম্য পাচ্ছি তা হল
.৩৮৪ / .৩৪০ -( ১) = .১২৯ বা .১৩ । সো ১৩ % স্পীড বেশী পাব।

তাহলে এখন ৯০০০ RPM এ স্টক ( ৫ম গিয়ার) এ ৩৯ দাতের স্প্রকেট দিয়ে আমার টপ স্পীড থাকবে ১৩% বেশী বা ১১০ + ১৩% = ১১০ + ১৪ = ১২৪ কিমি/ঘন্টা ।

আমি যদি ডিসকোভারি ১২৫ এর ৪২ দাতের লাগাই তাহলে,
১৫/৪২ = .৩৫৭

তাহলে, শতকরা কত স্পীড বাড়বে দেখে নেয়া যাক।

.৩৫৭ কে ভাগ দেই স্টক .৩৪০ , তাহলে , ৩৫৭/ .৩৪০ = ১.০৫ এখন ১ বিয়োগ দিলেই আমরা % পেয়ে যাচ্ছি। তাহলে থাকে ০৫ % বা ৫ পারসেন্ট।

সুতরাং টপ স্পিড হবে –

১১০ + ৫% = ১১০ +৫.৫ = ১১৫.৫ কিমি/ঘন্টা .

আবার যদি আমি সম্পূর্ণ সামনের এবং পিছনের সেট পালটিয়ে নেই , আমরা পালসার ২২০ এর সেট ১৪ /৩৭ লাগিয়ে নিয়ে দেখি।

তাহলে , ১৪ /৩৭ = .৩৭৮

সুতরাং টপ স্পীড বৃদ্ধি পাবে

.৩৭৮ / .৩৪০ ( স্টক) = ১.১১ বা ১১ % বাড়বে।

sakib choudhury

এই ভাবে আপনি আপনার বাইক এর স্প্রকেট পরিবর্তন এর আগে হিসাব করতে নিতে পারেন। উল্লেখ্য আপনি অভার গিয়ার করলে এক্সেলেরেশেন কমবে এবং অত্ত্যাধিক ওভার গিয়ারিং কাগজে কলমে স্পীড বাড়বে দেখাবে কিন্ত রিয়েল লাইফে তা উল্টাও ও হতে পারে। ইঞ্জিন এর শক্তি, বাতাসের বাধা ইত্তাদি টপ স্পীড অর্জন এর জন্য খুব জরুরি ।

লিখেছেন – Sakib Choudhury

About শুভ্র সেন

সবাইকে শুভেচ্ছা । আমি শুভ্র,একজন বাইকপ্রেমী । ছোটবেলা থেকেই মোটরসাইকেলের প্রতি আমার তীব্র আগ্রহ রয়েছে । যখন আমি আমার বাড়ির আশেপাশে কোন মোটরসাইকেলের ইঞ্জিনের শব্দ শুনতে পেতাম, আমি তৎক্ষণাৎ মোটরসাইকেলটি দেখার জন্য ছুটে যেতাম ।২ বছর ধরে গবেষণা ও পরিকল্পনার পর আমি এই ব্লগটি তৈরী করি । আমার লক্ষ্য হল বাইক ও বাইক চালানো সম্পর্কে বাংলাদেশের মানুষের কাছে সঠিক তথ্য পৌঁছে দেয়া । সবসময় নিরাপদে বাইক চালান । আপনার বাইক চালানো শুভ হোক

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

error: সকল লেখা সুরক্ষিত !!