আপনার মোটরসাইকেল কিভাবে পরিস্কার করবেন ?

আমরা এমন এক পরিবেশে বাস করি যেখানে আমাদের চারপাশেই রয়েছে প্রচুর ময়লা যেগুলো মানুষ, জীবজন্তু এমনকি মোটরসাইকেলের জন্যও ক্ষতিকর। এখানে আমরা আলোচনা করবো কিভাবে আপনি আপনার মোটরসাইকেল পরিস্কার করবেন ( How to clean your motorcycle)। যদি কোন কিছু দীর্ঘ সময় ধরে খোলা বাতাসে রেখে দেয়া হয় তবে তাতে ধুলা জমে যায় । এ কারণেই একটি বাইককে যদি খোলা আকাশের নিচে রেখে দেয়া হয় বা রাস্তায় চালানো হয় তখন এতে ধুলাবালি জমে এবং এই ধুলাবালি বাইকের জন্য খুবই ক্ষতিকর কারণ এগুলো বাইকের ইঞ্জিনের ক্ষতি করে।

how to clean your motorcycle

যদি আমরা আমাদের বাইককে ভালবাসি তাহলে এটির সম্পূর্ণ যত্ন নেওয়া উচিত । তাই যত্ন নেওয়ার জন্য আমাদের বাইকটিকে সঠিকভাবে পরিস্কার করতে হবে। কিছু মানুষের কাছে এটা খুবই বিরক্তিকর ও কঠিন কাজ মনে হতে পারে কিন্তু আমি আপনাদের এ সমস্যার একটি সহজ সমাধান দেব । নিন্মের প্রক্রিয়াটি আপনার জন্য একটি ভালো সমাধান হতে পারে এবং এটি করতে সময়ও কম লাগবে ফলে আপনার কাছে বিরক্তিকরও মনে হবে না । আপনি জেনে খুশি হবেন যে এই প্রক্রিয়াটি অনেক পেশাদার রেস দলও ব্যবহার করে থাকে ।

তাহলে আমরা শুরু করিঃ

প্রথমেই আমরা মোটরসাইকেল পরিস্কার করতে কি কি যন্ত্রপাতি লাগবে সেগুলো সম্পর্কে জেনে নেই-

১. শ্যাম্পুর পানি রাখার জন্য একটি পাত্র

২.বাইকের জন্য শ্যাম্পু

৩. গ্লাভস

৪.জীবাণু ও ময়লা পরিস্কারক

৫. ইঞ্জিন পরিস্কারক

৬. একটি  টুথব্রাশ

৭. চাকা পরিস্কার করার জন্য একটি ব্রাশ

৮. চাকা পরিস্কারক

৯. ১০০% কটনের স্পঞ্জ

১০. কতগুলো কটনের নরম তোয়ালে

১১. শুকানোর জন্য একটি মোটা কাপড়

আমরা এখন জানলাম মোটরসাইকেল পরিস্কার করার জন্য প্রয়োজনীয় সরঞ্জামগুলো সম্পর্কে। এখন আসুন প্রক্রিয়াটি সম্পর্কে বিস্তারিত জানি। আমরা আমাদের বাইককে শ্যাম্পু বা পানি দিয়ে পরিস্কার করতে পারি তাই এটা সম্পূর্ণ আপনার পছন্দ । আপনি যদি শ্যাম্পু ও পানি উভয়ই ব্যবহার করতে চান তাহলে কোন সমস্যা হবে না কিন্তু শুধু পানি ব্যবহার করলে আপনাকে গরম পানি ব্যবহার করতে হবে । উভয় ক্ষেত্রেই আপনাকে গরম পানি ব্যবহার করতে হবে ।

আমাদের স্পঞ্জগুলো প্রস্তুত রাখতে হবে এবং নিশ্চিত হতে হবে এটা যেন পরিস্কার থাকে তাই এমন জায়গায় রাখতে হবে যাতে এটি মাটি হতে যথেষ্ট উপরে থাকে। ফলে এটি ময়লা হবে না । ময়লার সাথে সাথে মৃত জীবাণুগুলোও আপনার বাইকের জন্য ক্ষতিকর হতে পারে । তাই আপনি মোটরসাইকেলের যেসব স্থানে জীবাণু ও ময়লা রয়েছে সেসব স্থান পরিস্কার করতে “ জীবাণু ও ময়লা পরিস্কারক” ব্যবহার করতে পারেন । জীবাণু পরিস্কার করার জন্য আপনি স্পঞ্জও ব্যবহার করতে পারেন ।

how to clean your motorcycle

যখন স্পঞ্জ দিয়ে পরিস্কার করবেন তখন খেয়াল রাখবেন যেন স্পঞ্জ এর ঘষা খুব জোরে না লাগে এবং কখনো একই স্পঞ্জ একাধিকবার ব্যবহার করবেন না । মোটরসাইকেলে দুই ধরনের যন্ত্রাংশ থাকে। এক ধরনের যন্ত্রাংশ হল শক্ত এবং অপর ধরনের যন্ত্রাংশ খুবই স্পর্শকাতর । তাই শক্ত অংশগুলোকে স্পর্শকাতর অংশগুলোর তুলনায় ভিন্নভাবে পরিস্কার করতে হবে । শক্ত অংশগুলো পরিস্কার করার জন্য আমরা “ডিগ্রিজার” ব্যবহার করবো এবং ডিগ্রিজার দেয়ার সাথে সাথে যন্ত্রাংশগুলোকে ঘষা উচিত নয় এতে মোটরসাইকেলের রঙের ক্ষতি হতে পারে এবং বাইকের রঙ উঠে যেতে পারে।

তারের জালিকার খুব একটা প্রয়োজন নেই কেননা সাধারন ছেরা কাপড়ও তারের জালিকার মত কাজ করে । এগজস্ট নল হতে জুতার দাগ পরিস্কার করার জন্য আপনি ক্লিনজার (বিশোধক) ব্যবহার করতে পারেন এবং আমরা জানি যে বাইকের দুই ধরনের যন্ত্রাংশ রয়েছে তাই আমরা স্পর্শকাতর অংশগুলোর জন্য ক্লিনজার ব্যবহার করতে পারি না নইলে এটা বাইকের ক্ষতি করতে পারে । এরপর আমরা হাতের সাহায্যে যে জায়গাগুলোতে পৌঁছান সম্ভব নয় সেগুলো টুথব্রাশ দিয়ে পরিস্কার করবো । বাইকে এমন অনেক যন্ত্রাংশ রয়েছে যেগুলো হাত দিয়ে পরিস্কার করা যায় না ।

তেল ও কালির দাগ পরিস্কার করার জন্য আপনি ডিগ্রেজার ব্যবহার করতে পারেন । চাকাগুলো পরিস্কার করা আসলেই কঠিন কারণ চাকাতে অসংখ্য ছোট ছোট ছিদ্র থাকে । তাই চাকাগুলো পরিস্কার করার জন্য একটি লম্বা টুথব্রাশের প্রয়োজন এবং ঐ ছিদ্রগুলো পরিস্কার করার জন্য আমরা হুইল ক্লিনজার ব্যবহার করতে পারি । ইস্পাতের হুইলগুলো ভিন্ন পদ্ধতিতে পরিস্কার করতে হবে । ইস্পাতের হুইলগুলোর জন্য ভিন্ন ধরনের ক্লিনজার পাওয়া যায় আপনি চাইলে সেগুলো কিনতে পারেন । এক বালতি গরম পানির সাহায্যে বাইকের রঙিন অংশগুলো পরিস্কার করতে হবে এবং ঐ রঙিন অংশগুলো তারের জালিকা দ্বারা পরিস্কার করলে সবচেয়ে ভালো হয় ।

how to clean your motorcycle

শ্যাম্পুর পানি বাইকের রঙিন অংশগুলোতে দাগ ফেলতে পারে তাই এগুলো মোছার আগে আপনাকে রঙিন অংশগুলো ধুয়ে ফেলতে হবে । আমি আগেই উল্লেখ করেছি যে ১০০% কটনের স্পঞ্জ ব্যবহার করুন নইলে বাইকের ক্ষতি হতে পারে । আরও এক বালতি পানি লাগবে বাইক হতে সাবানযুক্ত পানি ধুয়ে ফেলতে । আপনি আপনার বাইকটিকে অবশ্যই একটি আবদ্ধ জায়গায় রাখুন এবং শুকানোর জন্য একটি মোটা কাপড় ব্যবহার করুন কারণ এটা বাইককে দাগ পড়া বা আঁচড় লাগা থেকে রক্ষা করবে । এটা হল আমার জানামতে মোটরসাইকেল পরিস্কার করার সবচেয়ে সহজ প্রক্রিয়া । আমি আশা করি আপনাদেরও এটা সহজ মনে হবে এবং এবং এটা করতে আসলেই খুব বেশী সময়ের প্রয়োজন হয় না ফলে আপনি বিরক্ত হবেন না । মোটরসাইকেল এমন একটা জিনিস যেটা এর মালিকের কাছে অত্যন্ত প্রিয় হতে পারে । তাই আপনি যদি আপনার বাইককে ভালবাসেন তাহলে আপনার ব্যস্ত জীবনের কিছু সময় এটি পরিস্কার করার কাজে ব্যয় করুন । আমি আশা করা আমার এই সমাধান আপানাকে কিছুটা হলেও সাহায্য করবে এবং আপনি আপনার বাইক পরিস্কার করার কাজে এটি ব্যবহার করবেন । আপনি যদি নিজ হাতে আপনার বাইক পরিস্কার করেন তাহলে বাইকের উপর চড়ার সময় আপনার অন্যরকম উপভোগ্য  অনুভূতি হবে ।

আশা করা কিভাবে আপনার মোটরসাইকেল পরিস্কার করবেন ? লেখাটি বাইক চালকদের সঠিকভাবে তাদের বাইক পরিস্কার করতে সাহায্য করবে ।

About শুভ্র সেন

সবাইকে শুভেচ্ছা । আমি শুভ্র,একজন বাইকপ্রেমী । ছোটবেলা থেকেই মোটরসাইকেলের প্রতি আমার তীব্র আগ্রহ রয়েছে । যখন আমি আমার বাড়ির আশেপাশে কোন মোটরসাইকেলের ইঞ্জিনের শব্দ শুনতে পেতাম, আমি তৎক্ষণাৎ মোটরসাইকেলটি দেখার জন্য ছুটে যেতাম ।২ বছর ধরে গবেষণা ও পরিকল্পনার পর আমি এই ব্লগটি তৈরী করি । আমার লক্ষ্য হল বাইক ও বাইক চালানো সম্পর্কে বাংলাদেশের মানুষের কাছে সঠিক তথ্য পৌঁছে দেয়া । সবসময় নিরাপদে বাইক চালান । আপনার বাইক চালানো শুভ হোক

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

error: সকল লেখা সুরক্ষিত !!