স্টপি যেভাবে করবেন

আপনি এটাকে স্টপি বলতে পারেন কিংবা নোজ হুইলি বা এন্ডোও বলতে পারেন আপনার যা খুশি । স্টপি করার জন্য আপনাকে জানতে হবে কিভাবে স্টপি করতে হয় । এটা হল মোটরসাইকেলের সেই কৌশল যেখানে বাইকের পিছনের চাকা উপরে উঠে যায় এবং বাইক শুধু সামনের চাকার উপর দিয়ে চলে। এটা আপনাকে এমন এক ভয়ানক আনন্দের অনুভূতি দেবে যে আপনার মনে হবে আপনি যেন আপনার মুখ বরাবর মাটিতে গিয়ে পড়ছেন । এরকম ঘটতে পারে যদি আপনি ভুলভাবে ও নিরাপত্তা সরঞ্জাম ছাড়া স্টপি করেন ।

motorcycle stunt in bangladesh

প্রথমেই আপনাকে বাইক স্টান্ট সম্পর্কে যেটা জানতে হবে সেটা হল  বাইক স্টান্ট দেখতে খুবই সুন্দর ও আনন্দদায়ক কিন্তু আপনি যখন মাটিতে পড়বেন তখন কি হতে পারে তা আপনাকে ভাবতে হবে । তাই সকলকে যে জিনিসটি অবশ্যই মনে রাখতে হবে তা হল প্লিজ…প্লিজ যেকোন ধরনের স্টান্ট করার আগে অবশ্যই নিরাপত্তা সরঞ্জাম পরুন,পরার আগে এগুলো ভালোভাবে পরীক্ষা করে নিন এবং যে বাইকটি নিয়ে স্টান্ট করবেন সেটি সম্পর্কে ভালোভাবে জানুন ।

আপনার যা জানতে হবে তা হল স্টপি কিভাবে করতে হয় ?

নিজের একটি মোটরসাইকেল থাকলে এক্ষেত্রে খুবই উপকারী হতে পারে । চালানোর পূর্বে নিরাপত্তা সরঞ্জামগুলো ভালোভাবে পরে নিন । অবশ্যই একটি ভালমানের হেলমেট পড়বেন । এছাড়াও অন্যান্য নিরাপত্তা সরঞ্জাম যেমন  জ্যাকেট, প্যান্ট, গ্লাভস ও বুট ভালোভাবে পরুন । এ পর্যন্ত কাজগুলো মোটামুটি সোজা । আবার মোটরসাইকেলটি ভালোভাবে দেখুন । প্রথমেই আপনাকে যে জিনিসটি দেখতে হবে সেটা হল সামনের ব্রেক ঠিক আছে কিনা । এরপর দেখুন টায়ারগুলো ঠিক আছে কিনা । সাধারন টায়ারসমূহ এ ধরনের স্টান্ট করার জন্য খুব একটা উপযোগী নয় । এ ধরনের স্টান্ট করার জন্য এমআরএফ  টায়ার খুবই ভালো । একজন নতুন চালকের জন্য হাইড্রলিক ব্রেকযুক্ত হালকা ওজনের বাইক খুবই উপকারী হতে পারে । একটি ১০০ বা ১২০ সিসি বাইকের সাহায্যেই এটি করা যায় ।

আপনার কি করতে হবে ?

প্রথমেই আপনাকে যেটা করতে হবে তা হল আপনাকে শান্ত ও ধীরস্থির হতে হবে । একজন লোক যদি শান্ত থাকে তবে সে অনেক অসম্ভবকে সম্ভব করতে পারে ।

কিভাবে করবেন ?

এই অংশে আপনি ০ মাইল বেগে স্টপি করবেন । প্রথমে ১৫ মাইল গতি তুলুন তারপর চারটি আঙুলের সাহায্যে ধারাবাহিকভাবে সামনের ব্রেকটি টানুন । একই সাথে শরীরের জড়তা ভাঙুন এবং কিছুটা সামনের দিকে কিছুটা ঝুঁকে পড়ুন । যখনই আপনি ০ মাইলের কাছাকছি পৌঁছাবেন দ্রুত ব্রেক চেপে ধরুন। অনুশীলনের সময় চালককে সামনের ব্রেক নিয়ে প্রচুর প্র্যাকটিস করতে হবে যাতে সে স্টপি করার সময় সামনের ব্রেক ছেড়ে দেয়ার পর ভারসাম্য রাখতে পারে । সামনের চাকার সাথে রাস্তার সংযোগ খুবই গুরুত্বপূর্ণ কারণ এটা বাইকের সম্পূর্ণ ওজন বহন করবে । হঠাৎ করে সামনের ব্রেক ব্যবহার করে স্টপি করা যায় না । এটা অত্যন্ত কম গতিতেও করা যায় । অধিকাংশ মানুষকেই ট্রাফিক সিগন্যালে ঘণ্টায় দশ মাইল বেগে স্টপি করতে দেখা যায় । স্টপি দেখা ও শেখার জন্য এটা একটা ভালো জায়গা।  একটি ভালো রাস্তায় আপনি ৩০ মাইল বেগে অত্যন্ত চমৎকার স্টপি করতে পারবেন । কি ধরনের মোটরসাইকেল ব্যবহার করছেন তার উপর নির্ভর করে আপনার জন্য এটা অনেক সহজ হয়ে যেতে পারে।

এই তত্ত্বগুলোকে একপাশে রেখে এখন শুনুন একজন অভিজ্ঞ বাইক চালক কি বলেনঃ

১. একটি সাধারণ বাইক যেমন বাজাজ ডিসকভার ১২৫ সিসির সাহায্যে স্টপি অনুশীলন করুন । স্টান্ট করার জন্য এ বাইকটি ভালো।

২. আমি দুইভাবে স্টপি শিখেছি, এক হল দেখার মাধ্যমে এবং দুই হল পড়ে যাওয়ার মাধ্যমে । তাই এই স্টান্টটি করার পূর্বে কোন ভিডিও দেখুন এবং কারো কাছে কোন কিছু জিজ্ঞেস করতে লজ্জা পাবেন না।

৩. এটি করার জন্য একটি ভালো জায়গা নির্বাচন করুন । এখানে উল্লেখিত সাধারন কৌশলগুলো ভালোভাবে পড়ুন ।

বাংলাদেশে ইয়ামাহা এফজেডএস ও ইয়ামাহা আর ১৫ স্টপি করার জন্য সবচেয়ে ভালো বাইক।

আশা করি এই কৌশলগুলো অনুসরনের মধ্যমে আপনি কিভাবে স্টপি করতে হয় তা জানতে পারবেন।

About শুভ্র সেন

সবাইকে শুভেচ্ছা । আমি শুভ্র,একজন বাইকপ্রেমী । ছোটবেলা থেকেই মোটরসাইকেলের প্রতি আমার তীব্র আগ্রহ রয়েছে । যখন আমি আমার বাড়ির আশেপাশে কোন মোটরসাইকেলের ইঞ্জিনের শব্দ শুনতে পেতাম, আমি তৎক্ষণাৎ মোটরসাইকেলটি দেখার জন্য ছুটে যেতাম ।২ বছর ধরে গবেষণা ও পরিকল্পনার পর আমি এই ব্লগটি তৈরী করি । আমার লক্ষ্য হল বাইক ও বাইক চালানো সম্পর্কে বাংলাদেশের মানুষের কাছে সঠিক তথ্য পৌঁছে দেয়া । সবসময় নিরাপদে বাইক চালান । আপনার বাইক চালানো শুভ হোক

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Sign up to our newsletter!