অ্যালয় বনাম স্পোক হুইল কোনটি সেরা ?

চাকা হল একটি বাইকের জীবনীশক্তি । একটি বাইক কেমন তা এই গোলাকার অংশের মাধ্যমে জানা যায় । এই ছোট গোলাকার জিনিসটি যদি আবিষ্কৃত না হতো তাহলে আমাদের সভ্যতার বিকাশ কিছু সময়ের জন্য থমকে যেত এবং আমাদেরকে হয়তো বাইক বা গাড়িতে চড়ার পরিবর্তে ঘোড়ায় চড়তে হতো । প্রথম সাধারণ চাকা তৈরী হয়েছিল ব্যাবিলনে এবং তখন থেকে ঘুরছিল যতদিন  না  পর্যন্ত আধুনিক চাকা তৈরী হয় ।

motorcycle alloy wheel vs spoke wheel

একটি গতিশীল ও আধুনিক বাইকের একজন ভক্ত এখন মনে করে বাইক হল ফ্যাশনেরই একটি অনুষঙ্গ। কিন্তু ভুলে যাওয়া উচিত হবে না যে বাইকের প্রথম ও নিরাপদ চাকাগুলো তৈরী করা হয়েছিল বর্তমান ধারার অ্যালয় চাকার মতো করে নয় বরং স্পোকের চাকার মতো করে যেটা অনেকগুলো স্পোক বা কাটা দ্বারা পরিবেষ্টিত এবং যেটা সাধারণভাবে প্রত্যেক স্পোকেই তার ওজন ছড়িয়ে দেয় । এ ধরনের চাকা তৈরীর পদ্ধতি পূর্বের চাকা তৈরীর পদ্ধতিগুলোর মত ।

যখন রাবার হতে চাকার কাঠামো তৈরী করা হয়েছিল তখন চাকা স্পোকের কাঠামোতে স্থাপন করা হতো এবং অত্যন্ত নিরাপত্তা সহকারে এতে টইটম্বুর করে গ্যাস ভরা হতো । ভালভাবে প্রসারিত তার দ্বারা তৈরী স্পোকের চাকার ফলাফল ছিল এরকম যে ,একজন চালক বাইসাইকেলে বসে আছে আর এসময় চাকাটি কিছুক্ষণ পরপর মাটির কাছে কিছুটা হেলে পড়ছে ।

motorcycle alloy wheel vs spoke wheel

অন্যদিকে যে সকল স্পোক চাকার কেন্দ্রের নীচের দিকে থাকত সেগুলো চাকার প্রসারণ কমিয়ে দিত । তাছাড়া চিকন এবং সহজে বাঁকানো যায় এমন স্পোক দ্বারা তৈরী করার কারণে চাকাগুলো মাটিতে শক্ত হয়ে থাকে এবং  খুবই কম সাসপেনসন সরবরাহ করে  যা উন্নতমানের সাইকেলের চাকার সাথে তুলনীয়। অন্যদিকে বর্তমানের ফ্যাশনেবল ও হালকা অ্যালয় চাকাগুলো তৈরী করা হয়েছে অ্যালুমিনিয়াম বা ম্যাগনেসিয়ামের অ্যালয় হতে । এগুলো তুলনামূলকভাবে হালকা হলেও একই পরিমাণ শক্তি ও তাপ পরিবহন করে ।

 motorcycle alloy wheel vs spoke wheel

এগুলো তাদের হালকা ওজনের জন্য বাইকের উপর নিয়ন্ত্রণ বৃদ্ধি করে এবং দ্রুত গতি বৃদ্ধি করতে পারে । এগুলো তাদের সাসপেনসনকে মাটির সাথে আরও গভীরভাবে লেগে থাকতে সাহায্য করে এবং এটা   গ্রিপের উন্নতি সাধন করে । ভালো তাপ পরিবহন ব্যবস্থা ব্রেক হতে তাপ বেরিয়ে যেতে সাহায্য করে এবং এটা বিরূপ পরিবেশেও ব্রেকিং ক্ষমতার উন্নতি ঘটায়  এবং অতিরিক্ত তাপের কারণে ব্রেক ফেলের সম্ভাবনা কমিয়ে দেয় ।

এ ধরনের চাকাযুক্ত বাইকগুলো একই সাথে ফ্যাশনেবল ও সৌন্দর্যবর্ধক । এটি বাইকের সৌন্দর্য বৃদ্ধি করে এবং বাইকের আলংকারিক মূল্য বাড়িয়ে দেয় । অ্যালয় হুইলের মূল সমস্যা হল এগুলো বিভিন্ন ধরনের ধাতুর টুকরা দিয়ে তৈরী এবং আমরা জানি যে ধাতু ধীরে ধীরে ক্ষয়প্রাপ্ত হয় এবং রিমে ধার সৃষ্টি করে যে কারণে বাইকের টায়ার ছিদ্র হয়ে যায় ।

এছাড়া স্পোক হুইলের তুলনায় অ্যালয়  হুইলের মেরামত করা অনেক কঠিন কিন্তু এর উচ্চ মূল্যের কারণে মেরামত করার পরিবর্তে সম্পূর্ণ বদলে নেয়ার খরচ কম । মোটের উপর  মানসম্পন্ন স্পোক হুইলের তুলনায় অ্যালয় হুইল তৈরী অত্যন্ত ব্যয়বহুল ।

 কিন্তু সবশেষে এটা বাইকের মালিক ও প্রতিষ্ঠানের সিদ্ধান্ত তার বাইকে কোনটি লাগাবে ।

About শুভ্র সেন

সবাইকে শুভেচ্ছা । আমি শুভ্র,একজন বাইকপ্রেমী । ছোটবেলা থেকেই মোটরসাইকেলের প্রতি আমার তীব্র আগ্রহ রয়েছে । যখন আমি আমার বাড়ির আশেপাশে কোন মোটরসাইকেলের ইঞ্জিনের শব্দ শুনতে পেতাম, আমি তৎক্ষণাৎ মোটরসাইকেলটি দেখার জন্য ছুটে যেতাম ।২ বছর ধরে গবেষণা ও পরিকল্পনার পর আমি এই ব্লগটি তৈরী করি । আমার লক্ষ্য হল বাইক ও বাইক চালানো সম্পর্কে বাংলাদেশের মানুষের কাছে সঠিক তথ্য পৌঁছে দেয়া । সবসময় নিরাপদে বাইক চালান । আপনার বাইক চালানো শুভ হোক

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Sign up to our newsletter!