টীম বাইকবিডি

শুভ্র সেন
প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান সম্পাদক

সবাইকে শুভেচ্ছা । আমি শুভ্র,একজন বাইকপ্রেমী । ছোটবেলা থেকেই মোটরসাইকেলের প্রতি আমার তীব্র আগ্রহ রয়েছে । যখন আমি আমার বাড়ির আশেপাশে কোন মোটরসাইকেলের ইঞ্জিনের শব্দ শুনতে পেতাম, আমি তৎক্ষণাৎ মোটরসাইকেলটি দেখার জন্য ছুটে যেতাম ।

team bikebd

শুভ্র সেন

আমার মনে মোটরসাইকেল সম্পর্কে অনেক প্রশ্ন ছিল যেমন কেন একটি মোটরসাইকেলের ইঞ্জিনের শব্দ অন্যটি  হতে ভিন্ন হয় ? আমরা বন্ধুরা আমাদের শ্রেণীকক্ষের পাশের রাস্তা দিয়ে চলা বিভিন্ন বাইকের শব্দ যেমন হোন্ডা সিডিআই বনাম ইয়ামাহা আরএক্স ১০০ এর শব্দ নিয়ে খেলা করতাম ।

২০০৯ সালে অনেক তর্কের পর বাবা আমাকে একটি মোটরসাইকেল কিনে দিতে রাজি হলেন । তারপর আমি কিছুটা সিন্ধান্তহীনতায় ভুগছিলাম আমি কোন বাইকটি কিনব । আমি আমার বন্ধু ও আত্মীয় যাদের বাইক আছে এবং যারা এ ক্ষেত্রে অভিজ্ঞ তাদের প্রত্যেককে জিজ্ঞেস করি । তারা আমাকে হিরো হোন্ডা ও বাজাজের মধ্যে একটি পছন্দ করার কথা বলল।

তারপর আমি আমার বাজেটের মধ্যে সেরা বাইকটি কেনার জন্য কয়েকদিন ইন্টারনেটে চষে বেড়ালাম । আমরা সকলেই জানি যে বাংলাদেশের অধিকাংশ মোটরসাইকেলই ভারত থেকে আমদানি করা হয় তাই আমি ভারতীয় মোটরসাইকেল ব্লগ ও ওয়েবসাইটগুলো ভালোভাবে পড়লাম । ইউটিউবও আমাকে অনেক সাহায্য করেছিল ।

আমি দেখলাম যে ভারতের লোকজন বিভিন্ন ওয়েবসাইট ও ব্লগে বাইকের সমস্যা, বাইকের পর্যালোচনা, ব্যবহৃত বাইক কেনার পরামর্শ, বাইকের যত্ন নেয়ার পরামর্শ, বাইকের বিভিন্ন সমস্যার সমাধান ইত্যাদি নিয়ে আলোচনা করছে । কিন্তু বাংলাদেশে এ ধরনের আলোচনার কোন ক্ষেত্র নেই । তারপর আমি বাংলাদেশের মানুষের মোটরসাইকেল সম্পর্কিত সকল বিষয় নিয়ে একটি ওয়েবসাইট তৈরীর চিন্তা করলাম ।

২০১১ সালে বাংলাদেশে মোট ১,১২,৭২৩ টি বাইক বিক্রি হয় । এটি একটি উদীয়মান শিল্প এবং বর্তমানে মানুষ যানজট ও কম রক্ষনাবেক্ষন খরচের জন্য বাইককে অগ্রাধিকার দেয় ।

২ বছর ধরে গবেষণা ও পরিকল্পনার পর আমি এই ব্লগটি তৈরী করি । আমার লক্ষ্য হল বাইক ও বাইক চালানো সম্পর্কে বাংলাদেশের মানুষের কাছে সঠিক তথ্য পৌঁছে দেয়া ।

সবসময় নিরাপদে বাইক চালান । আপনার বাইক চালানো শুভ হোক (><)

পিয়াস জিআরজেড
উপদেষ্টা

হাই আমি পিয়াস, জন্মসূত্রেই একজন জিআরজেড । জিআরজেড মানে হল বিডি গোস্ট রাইডার্স  যা বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় বাইক চালকদের ক্লাব । আমি বিডি গোস্ট রাইডার্স এর প্রতিষ্ঠাতা ।

team bikebd

পিয়াস  জিআরজেড

মোটরসাইকেল আমার কাছে শুধুই একটি শব্দ নয়, আমার কাছে এর মানে হল গতি । আমি যখন শুভ্র থেকে বাইকবিডি.কম এর লক্ষ্য সম্পর্কে জানতে পারলাম আমি বলেছিলাম কেন নয় ?  বিডি গোস্ট রাইডার্স এর একজন প্রতিষ্ঠাতা হিসেবে আমি টীম বাইকবিডির সাথে যোগ দিই কারণ জিআরজেড মানেই হল বাংলাদেশে মোটরসাইকেল  নিয়ে যে কোনও কিছু।

পঞ্চম শ্রেণীতে পড়ার সময় আমি মোটরসাইকেল চালানো শিখি । আমার চাচা ছিলেন আমার শিক্ষক । প্রত্যেক সকালেই আমরা কয়েকজন চাচাতো ভাইবোন বাইক চালানোর জন্য বেরিয়ে পড়তাম । আমার বাবা-মা আমাকে বাধা দেয়ার চেষ্টা করেছিল কিন্তু কয়েকদিন পর আমার দক্ষতা দেখে তারা বাকরুদ্ধ হয়ে গিয়েছিল ।

আমার প্রথম বাইক ছিল ইয়ামাহা আর১৫ ভি১, বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়ার পর এটা আমি নিজের টাকা দিয়ে কিনেছিলাম । আমি স্টান্টের চেয়েও গতি ভালবাসি……হ্যাঁ এটা সত্যি । যে কারনে আমি চারটি ইয়ামাহা আর১৫ ভি১ ও ইয়ামাহা আর১৫ ভি২ পাল্টেছি । রেইস সবসময় আমার মনেই থাকে । আমি হাইওয়েতে কোন ব্রেক নেয়া ছাড়াই বাইক চালাতে পছন্দ করি ।

আমার সর্বোচ্চ গতি হল ১৫৮ কিলোমিটার যা সিবিআর২৫০ তে তোলা । আমি ঐ সময় ঢাকা-রাজশাহী ২ ঘন্টা ১৫ মিনিটে ভ্রমণ করেছিলাম কোন ব্রেক না নিয়েই । হ্যাঁ আমি আসলেই এ ধরনের গতিপ্রেমী ।

আমি এফজেডএস এর সাহায্যে স্টান্ট করতে পছন্দ করি । কি ধরনের মোটরসাইকেল স্টান্ট আমি করতে পারি ? ঠিক আছে, আমি সেটা এখানে বলার চেয়ে মাঠে প্রমাণ করতেই ভালবাসি…….হা হা হা ।

আমার স্মরণীয় স্মৃতি হল আমরা পাঁচজন আর১৫ ভি১ বাইক চালক পরস্পর এক হাত দূরত্বে পাশাপাশি এক সাথে  ১৩৫ কিলোমিটার গতিতে যমুনা সেতুর উপর বাইক চালিয়েছিলাম । আমার প্রিয় মোটরসাইকেল হল ইয়ামাহা আর৬ ও ডুকাটি ৯৯৯ ।

আমার স্বপ্ন হল ভালো চালকদের খুঁজে বের করা এবং তাদের প্রশিক্ষণের মাধ্যমে ভালো স্টান্টার হিসেবে উপস্থাপন করা । আমি গোস্ট রাইডার্স এর সাহায্যে অবশ্যই এটা করতে পারব । যদি সম্ভব হয় আমি নিকট ভবিষ্যতে বাংলাদেশে মোটো জিপি রেইস দেখতে চাই ।

আমি আমার জ্ঞানের মাধ্যমে বাইকবিডি.কম কে সাহায্য করতে চাই এবং আমার অভিজ্ঞতাগুলো বাইক চালকদের মধ্যে ভাগাভাগি করতে চাই । বাইক চালকেরা বাইকবিডি.কম এর মাধ্যমে কিছু গুরুত্বপূর্ণ নির্দেশনা পেতে যাচ্ছে। তাই বাইকবিডি.কম এর সাথেই থাকুন……….

 

মোঃ মিঠুন মৃধা

উপদেষ্টা   

আমার নাম মোঃ মিঠুন মৃধা । বাইকের প্রতি আমার তীব্র আগ্রহ রয়েছে । এই আগ্রহ ছোটবেলা থেকেই আমার মধ্যে বেড়ে উঠে যখন আমি আমার বাবার মোটরসাইকেলে চড়তাম । আমার নিজের বাইক পাওয়ার পর হঠাৎ করেই বাইকের প্রতি এ তীব্র আগ্রহ স্টান্টিং এ রূপান্তরিত হয় ।

team bikebd

মোঃ মিঠুন মৃধা

আমি বাইকবিডি.কম এর শুরু থেকেই একজন উপদেষ্টা হিসেবে এর সাথে যুক্ত আছি । পেশাগতভাবে আমি একজন ছাত্র, মনেপ্রাণে একজন বাইকপ্রেমী এবং মোটরসাইকেল ৬ বছর ধরে আমার জীবনের অংশ ।

আমি সবসময় নতুন ও অসাধারণ কিছু করতে চাই এবং নতুন কিছু নিয়ে পরীক্ষা-নীরিক্ষা করার স্বভাবের কারণেই মূলত আমি স্টান্টিং পছন্দ করি । আমি ২০০৭ সালে আমার নিজের বাইক পাওয়ার পর থেকেই স্টান্টিং করা শুরু করি ।

স্টান্টিং শুরু করার পর থেকেই আমি আমার এলাকা ও ঢাকা শহরের বাইক চালকদের মধ্যে জনপ্রিয় হতে শুরু করি। যে কারনে বিভিন্ন টিভি চ্যানেলে আমার সাক্ষাৎকার প্রচারিত হয়েছে । আমি আমার অবসর সময় ভ্রমণ করে কাটাতে পছন্দ করি । অবশ্যই আমি আমার বাইক নিয়ে ভ্রমণ করতে পছন্দ করি ।

আমরা কয়েকজন বন্ধু মিলে ২০০৭ সালে হান্ট রাইডার্স (HAUNT RIDERZ)  নামে একটি মোটরসাইকেল গ্রুপ প্রতিষ্ঠা করি । আমি এই এইচআরজেড (HRZ) গ্রুপের অ্যাডমিন । আমার দল এইচআরজেড মূলত স্টান্টিং প্রচার করে থাকে । এছাড়াও আমরা মোটরসাইকেল সম্পর্কিত বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহন করে থাকি। সর্বশেষ যে কাজটি আমরা করেছি সেটা হল  “ভেলোসিটি জেনারেশন নেক্সট” যেটা হল প্রথম মোটরসাইকেল রেসিং প্রতিযোগিতা । আমি আমার দল ও দলের সদস্যদের নিয়ে গর্বিত এ কারনে যে আমরা বাংলাদেশে মোটরসাইকেল রেসিং এর প্রথম পদক্ষেপটি নিতে পেরেছি ।

আমি বাইক সম্পর্কে পড়তে পছন্দ করি । আমি এ কাজে প্রছুর সময় ব্যয় করি । বাংলাদেশের চালকদের সাহায্য করার জন্য যথাযথ জ্ঞান অর্জনের পরই আমি পর্যালোচনা লিখি । আমি আমার উপদেষ্টার পদের ব্যাপারে আপনাদের সহযোগিতা কামনা করছি এবং খুশি হব যদি আপনারা সকলেই আমাকে ভালোভাবে গ্রহণ করেন ।

ধন্যবাদ

হান্ট রাইডার্স (Haunt Riderz) এর ফেসবুক ফ্যান পেজ দেখুন

মাহিদুল ইসলাম (মাহিদ)
ফটোগ্রাফার

হাই, আমার নাম মাহিদ এবং আমি বাইকবিডি টীমের সাথে কাজ করছি ২০১২ সালের সেপ্টেম্বর থেকে । ২০০৯ সালে সুজুকি ১২৫ সিসির সাহায্যে আমার প্রথম বাইক চালানো শেখার সময় আমি স্বাধীনতা, গতি,  ভ্রমণ এবং মোটরসাইকেলের সাহায্যে ঘুরে বেড়ানোর আনন্দ অনুভব করেছি ।

team bikebd

মাহিদুল ইসলাম (মাহিদ)

এখনো পর্যন্ত আমি আমার ভাইয়ের মোটরসাইকেলটি ( ইয়ামাহা লিব্রিও ১১০ সিসি ) চালাচ্ছি, যেটা আমাকে সেরা সার্ভিসই দিচ্ছে ।

আমার আগ্রহ নিয়ে বলতে গেলে বলা যায় অটোমোবাইল, ছবিতোলা, যন্ত্রপাতি, মেশিন প্রায় সবকিছুই আমাকে আকর্ষণ করে । কোন কিছু শুধু আমার চোখে পড়লেই হয় এটা আমাকে তার দিকে টেনে নিয়ে যায় । বাইক এবং অটোমোবাইল হল আমার পছন্দগুলোর মধ্যে শীর্ষ দুই প্রতিযোগী । ইঞ্জিন কি তা জানার পূর্বেই আমার বাইক জীবন শুরু হয়েছিল । এরপর থেকে আমি আর কখনো পিছনে ফিরে তাকাইনি এবং বাইক ও অটোমোবাইল এর প্রতি আমার আগ্রহ প্রতিদিন বেড়েই চলেছে ।

উল্লেখ করতে ভুলে গিয়েছি, আমার সকল দক্ষতা যেগুলো আজ আমি প্রয়োগ করছি সবই উত্তরাধিকারসূত্রে আমার বড় ভাই হতে পাওয়া । এ সবকিছুই আমার নিজের সম্পর্কে । আমি আশা করি বাইকবিডি.কম এ আমার অবদান ও আমার ছবিগুলো আপনারা পছন্দ করবেন । আপনার পরামর্শ এবং মতামতকে সবসময় স্বাগত জানানো হবে ।

দেখুন আমার ফেসবুক ফ্যান পেজ

রাসেল রাইডার
উপদেষ্টা  

তারা বলে,“সেই ব্যক্তিকে সম্মান কর যে মোটরসাইকেল চালানোর কালো দিক দেখেছে এবং এখনো বেঁচে আছে ।” তারা আরও বলে,“ কিছু চালক তাদের দিক পছন্দও করে এবং সে অনুযায়ী যায়……..কিছু চালক তাদের দিক নিজেরাই তৈরী করে নেয় এবং সে অনুযায়ী চলে।”

team bikebd

রাসেল রাইডার

আমি আনোয়ারুল বারি (রাসেল রাইডার বা আরআর নামেই বেশী পরিচিত) । এনএসইউ হতে বিবিএ ও এমবিএ শেষ করার পর আমি বর্তমানে বাংলাদেশ ব্যাংক এর সহকারী পরিচালক হিসেবে কর্মরত আছি এবং আমি বিডি রাইডার্স ক্লাবের ( BD Riderz Club) প্রতিষ্ঠাতা ।

এবার আসুন আমার জীবনের চালক অংশের দিকে । ২০১১ সালের ১৬ ই ডিসেম্বর আমি বাংলাদেশের মোটরসাইকেল চালকদের নিয়ে একটি বন্ধুত্বপূর্ণ সমাজ গড়ে তোলার লক্ষ্য নিয়ে প্রতিষ্ঠা করি বিডি রাইডার্স ক্লাব । বাইক চালকদের মধ্যে বন্ধুত্ব ও ভ্রাতৃত্ববোধ বাড়ানোর পাশাপাশি ক্লাবটি আমাকে মোটরসাইকেলের সাহায্যে ভ্রমণ ও ছবি তোলার মাধ্যমে বাংলাদেশকে ব্র্যান্ডিং করারও সুযোগ করে দিয়েছে ।

“It is good to have an END to JOURNEY towards; But it is the JOURNEY that matters at the END.”

আপনারা আমাকে হাইওয়ে পাগল বা গতির পাগল বলতে পারেন । হাইওয়ে হল আমার সত্যিকারের বাড়ি । আমি স্মরণ করতে পারবনা কতবার আমি আমার ব্যাগ নিয়ে, একটি সিগারেট জ্বালিয়ে, এক কাপ কফি খেয়ে তারপর হটাৎ গন্তব্য ঠিক করে বেরিয়ে পড়েছি । হাইওয়ে হল খুবই ঝুঁকিপূর্ণ জায়গা কিন্তু আপনি নিশ্চয় জানেন যে,“ একজনের জীবনের সবচেয়ে বড় ঝুঁকি হল কোন ঝুঁকি না নেওয়া ।” আমি ইতোমধ্যেই একাকী বা দলগত ভ্রমণের মাধ্যমে বাংলাদেশের সকল উল্লেখযোগ্য জায়গা ভ্রমণ করেছি । বাংলাদেশের সকল সুন্দর জায়গায় বাইক চালানো  এবং আমাদের প্রিয় মাতৃভূমির সৌন্দর্য ধরে রাখা আমার কাছে অনেকটা নেশার মত । অনেকেই বলে যে বাংলাদেশে চালানোর মত কোন সুন্দর রাস্তা নেই বা দেখার মত কোন সুন্দর জায়গা নেই, আমি তাদের আমন্ত্রণ জানাব আমার সাথে চালাতে এবং আমি কথা দিচ্ছি আমি আপনাকে আমাদের মাতৃভূমির গর্ভে বিদ্যমান স্বর্গ দেখাব ।

কতগুলো নিঃশ্বাস আমরা নিলাম সেটা নিয়ে জীবন মাপা হয় না, জীবন মাপা হয় কতগুলো মুহূর্ত আমাদের নিঃশ্বাস কেড়ে নিল তা দ্বারা ।

আমি আমার সম্পূর্ণ হৃদয় দিয়ে শুভ্র সেনকে স্বাগত ও শুভকামনা  জানায় । আমাদের মোটরসাইকেল চালকদের শিক্ষিত করার জন্য এটা হল একটি দীর্ঘ পথচলা যেখানে তারা একটি পর্যালোচনা বা একটি আর্টিকেল এর মাধ্যমে কিভাবে কাগজপত্র সংক্রান্ত কাজগুলো করতে হবে বা নিরাপদে মোটরসাইকেল চালানোর উপায় সম্পর্কে জানতে পারবে । বাংলাদেশের প্রথম মোটরসাইকেল ব্লগ হিসেবে বাইকবিডি-র প্রতি শুভ কামনা রইল । আমরা তোমাকে নিয়ে গর্বিত এবং সবসময় তোমার সাথেই আছি ।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Sign up to our newsletter!